বিজ্ঞাপন

Thursday, June 17, 2021
World on Web


শবে কদরের ইতিহাস

শবে কদর অত্যন্ত ফজিলতপূর্ণ একটি রাত। এ রাতের সঠিক ইতিহাস তেমন ভাবে জানা না থাকলেও বিভিন্ন রেওয়াতে এর ইতিহাস কিছুটা…

By admin , in আমাদের ইসলাম ইতিহাস , at May 9, 2021

বিজ্ঞাপন





শবে কদর অত্যন্ত ফজিলতপূর্ণ একটি রাত। এ রাতের সঠিক ইতিহাস তেমন ভাবে জানা না থাকলেও বিভিন্ন রেওয়াতে এর ইতিহাস কিছুটা পরিলক্ষিত হয়। এর কিছু নিচে বর্ণিত হলোঃ-

[১] নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দেখলেন যে, পূর্ববর্তী উম্মতগণ দীর্ঘদিন জীবিত থাকতেন। আর সেই তুলনায় এই উম্মতের হায়াত খুবই কম। এমতাবস্থায় কেউ যদি তাদের সমান আমল করতে চায় তবে তা সম্ভব হবে না। বিষয়টি চিন্তা করে আল্লাহর প্রিয় নবীর কষ্ট হয় এবং এর ক্ষতিপূরণের জন্য এই রাত্রি দান করা হয়েছে যা হাজার মাস ইবাদতের চেয়েও উত্তম।

[২] কোনো কোনো বর্ণনায় এসেছে, একবার নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বনী ঈসরাইলের এক ব্যক্তির কথা বলছিলেন যে, তিনি একহাজার মাস আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ করেছিলেন। ইহা শুনে সাহাবায়ে কেরামের ঈর্ষা হয় এবং তাদের এমনভাবে ইবাদতের ইচ্ছা জাগে। অতঃপর তাদের ক্ষতিপূরনের জন্য আল্লাহ এই রাত দান করেন।

[৩] এক রেওয়াতে আছে, একদা নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বনী ঈসরাইলের চারজন নবীর কথা বলেন। (১) হযরত আইয়ূব আলাইহিস সালাম, (২) হযরত জাকারিয়া আলাইহিস সালাম, (৩) হযরত হিজকিল আলাইহিস সালাম, (১) হযরত ইউশা আলাইহিস সালাম। তারা প্রত্যেকে আশি বছর ধরে ইবাদতে মশগুল ছিলেন এবং ছোখের পলক পরিমান সময়ও আল্লাহর সাথে নাফরমানি করেননি। ইহা শুনে সাহাবাগণ আশ্চর্য হন এবং পরক্ষণেই হযরত জিবরাইল আলাইহিস সালাম সূরা কদর নিয়ে নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর খিদমতে হাজির হন।

সূত্রঃ ওয়াজের ডায়েরী। মাওলানা মাজিদুল হত সুনেশ্বরী

Comments


Leave a Reply


Your email address will not be published. Required fields are marked *